বিয়ের আগে ত্বকের যে যত্নগুলো নেয়া জরুরী – NariBangla

বিয়ের আগে ত্বকের যে যত্নগুলো নেয়া জরুরী

2 Replies

Lifestyle

বিয়ে প্রতিটি নারীর জীবনে অনেক প্রত্যাশিত একটি ঘটনা। একটি মেয়ে যে দিন থেকে বিয়ে সম্পর্কে  বুঝতে শিখে, তারও আগে থেকে বিয়ে নিয়ে তার জল্পনা কল্পনা শুরু হয়। আর এখনকার যুগে বিয়ের আয়োজনে মেয়েরা নিজেদের সংযুক্ত রাখতে চায় যাতে নিজের জীবনের এই বিশেষ দিনকে মেমোরিবল করে রাখা যায়।

বর্তমান বিয়ে গুলোতে এর আয়োজনের অধিকাংশ চাপই এসে পড়ে বর-কনের ওপর। বিয়ের শপিং, অনুষ্ঠান আয়োজন, প্ল্যানিং ছাড়াও নতুন জীবনে প্রবেশের ভয়ভীতিসহ নানা চিন্তা এসে মাথায় ভর করে। তাই সব মিলিয়ে উভয়ের চোখেমুখেই থাকে ক্লান্তির ছাপ। মুখ ও শরীরের ত্বকে দেখা দেয় নানা সমস্যা। তাই সবকিছুর মধ্যেই নিজেকে সম্পূর্ণ স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করতে হবে।

অসম প্রেম বিয়ের সম্পর্কে সমস্যা এবং তার সমাধান

নিয়মিত ত্বকের যত্নের পাশাপাশি জেনে নিন বিয়ের আগে ত্বকের যে যত্নগুলো নেয়া জরুরী

বিয়ের ৩ মাস আগে থেকে যে যত্নগুলো নিবেন

  1. বিয়ের আগে মেয়েদের প্রচুর স্ট্রেস যায়, থাকে অতিরিক্ত দুচিন্তা নতুন জীবন নিয়ে, রাত জাগা, রোদে পুরে শপিং করা। তাতে করে শরীর থেকে আয়রন, ভিটামিন স্বল্পতা দেখা দেয়। প্রতিদিন রাতে ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, আয়রন ট্যাবলেট নেওয়া উচিত। এতে করে চুল পড়া কমবে, মুখে বাড়তি স্ট্রেস এর ছাপ পড়বে না, ত্বক ফ্রেশ দেখাবে।
  2. একটা স্কিন রুটিনে চলে আশা উচিত। সকালে ঘুম থেকে উঠে ভালো করে মুখ ধোয়া, টনিং করা, ভালো দেখে ডে ক্রিম লাগানো, বাইরে গেলে সানস্ক্রিন লোশান্‌ লাগানো। রাতে একটা নাইট ক্রিম দেওয়া। বাজারে অনেক ধরনের নাইট ক্রিম পাওয়া যায়। রাতে আই ক্রিম লাগাতে একদম এ ভুলবেন না। সপ্তাহে ২দিন চুলে তেল দিবেন।
  3. যার কাছে সাজবেন তাকে আগেই বুকিং দিয়ে রাখুন। মনে রাখবেন লাস্ট সময়ের জন্য কিছুই ফেলে রাখবেন না।
  4. প্রতি মাসে একবার পারলার এ গিয়ে নিজের ত্বকের ধরন অনুযায়ী ফেসিয়াল করাবেন, সপ্তাহে একবার পেডিকিউর, মেনিকিউর করাবেন। মাসে দুইবার হট অয়েল মেসেজ এবং একবার প্রোটিন প্যাক লাগাবেন। এতে করে চুল এ খুশকি হবে না, চুল নরম থাকবে। ভ্রু প্লাক না করিয়ে বড় করুন, বিয়ের আগে নতুন করে ভ্রুর শেপ দিন।
  5. যদি আপনার বাহুর নিচে কালো দাগ থাকে, প্রতিদিন লেবু দিয়ে ঘষবেন, ঠোটে থাকলে কাঁচা দুধ দিয়ে ঘসবেন, কালো দাগ চলে যাবে।

ঘুমের আগে রূপচর্চা যা আপনাকে রাখবে সতেজ ও সুন্দর

বিয়ের ১ মাস আগে থেকে যে যত্নগুলো নিবেন

  1. কোন দুচিন্তা না করে, বিয়ের পরের সুন্দর জীবন, নতুন জীবন এর কথা ভাববেন। কি করে জীবনটাকে উপভোগ্য করা যায় সেটা ভাববেন। মোট কথা সুন্দর চিন্তা করবেন।
  2. বিয়ের আগে লাস্ট ফেসিয়াল করিয়ে ফেলুন।
  3. চুল একটু ছেঁটে নিতে পারেন।
  4. রেগুলার মুখে প্যাক লাগাবেন।
  5. প্রতিদিন রাতে দুধের সাথে কাঁচা হলুদ মিক্স করে খাবেন। এতে ত্বকের রঙ উজ্জ্বল হবে। প্রচুর পরিমাণে পানি খাবেন, কোষ্ঠকাঠিন্য থাকলে ইসবগুলের ভুসি খাবেন।
  6. এই সময় স্কিন নিয়ে কোন পরীক্ষা নিরিক্ষা না করাই ভালো, যা আগে থেকে ব্যবহার করতেন সেটা করাই ভালো। নতুন কিছু ট্রাই করা উচিত না। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে।
  7. যাকে দিয়ে মেহেদি লাগাবেন তাকে বুক করে ফেলুন। আজকাল মেহেদি কনের একটা আকর্ষণীও পার্ট।

আন্ডারআর্ম বা বগলের নিচে কালো দাগের কারণ ও পরিচর্যা

১ সপ্তাহ আগে যে যত্নগুলো নিবেন

  1. বিয়ের ফেসিয়াল টি করে ফেলুন, সেটা হতে পারে গোল্ড, ব্রাইডাল ফেসিয়াল।
  2. পেডিকিউর, মেনিকিউর করিয়ে ফেলুন।
  3. চুল স্পা করাতে পারেন।
  4. প্রচুর পানি পান করুন.

আরও কিছু টুকিটাকি

  1. নিজেকে রিল্যাক্স রাখতে ভালো কোনো স্পা থেকে বডি ম্যাসাজ বা অ্যারোমা থেরাপি নিয়ে নিতে পারেন।
  2. মনের চাপ কমাতে বিয়ের আগে থেকে বিভিন্ন রকম এক্সারসাইজ করতে পারেন।
  3. বিয়ের আগের দিন হাতে মেহেদি লাগান।
  4. বিয়ের সাজের দিন পার্লারে যাওয়ার আগে ফুল কিনে রাখুন।
  5. শাড়ি, গহনা, জুতাসহ সব জিনিস সঙ্গে নিয়ে নিন।

বয়সে ছোট স্বামী বেছে নিবেন কি?

মানসিক প্রস্তুতি:
বিয়ের আগে ত্বকের যত্ন ছাড়াও আপনার দরকার মানসিক প্রস্তুতি। বিয়ের পর অনেক দায়িত্ব বেড়ে যায়। তাই বিয়ের আগে থেকে বাস্তবতার দিকেও নজর দিতে হবে। মা কিংবা কাছের অভিজ্ঞ কেউ কনেকে ইতিবাচকভাবে জীবনের বাস্তবতা বুঝিয়ে বলতে পারেন। ছেলেমেয়ে দুজনকেই পরস্পরের পরিবারের সঙ্গে মানিয়ে চলার মানসিকতা থাকতে হবে। তা হলে দাম্পত্য জীবনে অনেক সমস্যা এড়িয়ে চলা সম্ভব। নিজের, পরিবার ও সমাজের প্রতি দায়িত্ববান হতে হবে। নিজের স্বভাবের কোনো নেতিবাচক দিক থাকলে সেগুলো সংশোধনের চেষ্টা করতে হবে। নিজেদের সবদিক বিয়ের আগে পারস্পরিকভাবে আলোচনা করলে বোঝাপড়ার শুরুটা ভালো হবে। প্রতিটি পরিবারের আলাদা নিয়ম কানুন, আচার-ব্যবহার থাকে। সেসব আগে থেকে জেনে নিতে পারলে পরে নতুন সদস্যের বুঝতে সহজ হয়। এসব ক্ষেত্রে শুধু মেয়েরাই মানিয়ে চলবে তা নয়, ছেলের পরিবারকেও এ বিষয়ে বড় ভূমিকা পালন করতে হবে। শাশুড়ি নিয়ে অনেক মেয়ের মনে চিন্তা থাকে। বিয়ের আগে সুযোগ থাকলে মেয়ের সঙ্গে ছেলের পরিবার কথা বলে নিতে পারে। তবে শুরুতেই মেয়েকে নেতিবাচক কোনো বিষয় বলা উচিত নয়। বিয়ের আগে এবং পরে আমাদের জীবনে বেশ বড় পরিবর্তন হয়। তাই এ সময়টি পরিবারের সবার সঙ্গে উপভোগ করুন। সব মিলিয়ে বিয়ের আগের সময়টাতে মানসিক চাপমুক্ত থাকুন।

লাল পোশাকে নারীরা কেন এত আবেদনময়ী! 

2 comments

  1. Pingback: গায়ে হলুদের সাজ - পোশাক গহনা ও হলুদের সরঞ্জাম | NariBangla

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

//GA Code Start //GA code end