মধ্যবয়সী নারীরা কেন কম বয়সী ছেলের সাথে সম্পর্ক গড়ে – NariBangla

মধ্যবয়সী নারীরা কেন কম বয়সী ছেলের সাথে সম্পর্ক গড়ে

4 Replies

Lifestyle

মধ্যবয়সী নারীরা কেন কম বয়সী ছেলের সাথে সম্পর্ক গড়ে? এই প্রশ্নের এক কথায় উত্তর দেয়া কঠিন। এই পোষ্টে আমরা বিশ্লেষণ করার চেষ্টা করবো কেন মহিলারা অল্প বয়সী ছেলে খুজে নেয়।

মধ্যবয়সী নারীরা কেন কম বয়সী ছেলের সাথে সম্পর্ক গড়ে।

সমবয়সী পরুষ আর আকর্ষণীয় ও হ্যান্ডসাম নয়।

বয়স কখনো কখনো নির্মম হয়। যে পরুষকে এক সময় ভালো লাগতো, বয়স বাড়ার সাথে সাথে তার প্রতি আকর্ষণ হারাতে থাকে। কারণ বয়স, ওই পরুষ এখন আর আকর্ষণীয় ও হ্যান্ডসাম নয়। বিশেষ করে যে নারীরা নিজেদের শরীরে বয়সের ছাপ পরতে দেয়না, দেখতে আসল বয়সের চেয়ে এক যুগ কম তাদের মাঝে এমন ভাবনা বেশী খেলে। তারা সমবয়সী পরুষের সাথে বাহিরে যাওয়াকে কম্প্রোমাইজ মনে করে। বরং দশ বারো বছরের কম বয়সী ছেলের সাথেই তাকে বেশী মানায় বলে মনে করে। তাই একটা সময় পরে তারা কম বয়সী ছেলের সাথে সম্পর্ক গড়ে।

সমবয়সী পরুষ হয় বিবাহিত নয় এনগেজড

বয়স হয়েছে। কিন্তু পড়ালেখা আর ক্যারিয়ার নিয়ে মৌসুমি বয়সে ছোট ছেলের সাথেব্যস্ত থাকায় সম্পর্ক করা হয়নি। আজ যখন মনে হল পাশে একজন পুরুষ দরকার, তখন আর মনের মত সমবয়সী পুরুষ পাওয়া যাচ্ছেনা। যেখানেই তাকাচ্ছে হয় বিবাহিত নয় এনগেজড। তাই তাকাতে হচ্ছে কম বয়সী ছেলের দিকে।

যারা বিভিন্ন কারনে সম্পর্ক বিচ্ছেদ করেছে, তাদের ক্ষেত্রেও এমন হয়। মনের মত সমবয়সী পরূষের অভাবে কম বয়সী ছেলেকে বেছে নিতে হয়।

পানসে জীবনকে চাঙা করতে

স্বামী তার চাকরী বা ব্যবসা নিয়ে ব্যাস্ত। বিবাহিত সিমলা ছোট ছেলের সাথেজীবনটা হয়ে গেছে পানসে। রাতে বাসায় ফিরেও স্বামীর সময় পাওয়া যায়না। খাওয়া দাওয়া আর ঘুম, বাসায় যেন এইটুকুই কাজ তার। তাই পানসে জীবনকে চাঙা করতে অনেক নারী কম বয়সী  ছেলের সাথে সম্পর্ক গড়ে। কেন কম বয়সী ছেলে? কারণ তারা কম ব্যাস্ত থাকে, চাইলেই হাতের কাছে পাওয়া যায়।

নিজেকে কম বয়সী প্রমাণ করতে

অনেক নারী নিজের বয়সকে মেনে নিতে পারেনা। বিশ্বাস করতে চায় সে বয়সের চেয়ে তরুন। নিজেকে কম বয়সী প্রমান করতে কম বয়সী ছেলের সাথে সম্পর্ক গড়ে।

বেশী বয়সী পুরুষকে বিবাহ করা

অনেকে নারী অল্প বয়সে তার চেয়ে ১০ থেকে ২০ বছরের বেশী বয়সী পরুষকে বিয়ে করে। তা কখনো নিজের ইচ্ছেতে আবার কখনো পারিবারের ইচ্ছায়। শুরুতে ফ্যান্টাসি কাজ করলেও একটা সময় পরে মনে হয় স্বামীর সাথে সেও বড় হয়ে গেছে। তাই মাঝের ১০-২০ বছরের স্বাদ পাওয়া হয়নি। ওই অতৃিপ্তি মেটাতে অনেকে মধ্যবয়সী নারী কম বয়সী ছেলের সাথে সম্পর্ক গড়ে।

অন্যের সাথে প্রতিযোগিতা করে

বিয়ে হয়তো করেছে সমবয়সী কোন পুরুষকে। কিন্তু মধ্যবয়সী নারী কেন বয়সে ছোট ছেলে চায়কিছুদিন পর হয়তো তার কোন বন্ধু, আত্মীয় বা প্রতিবেশী কম বয়সে কোন ছেলেকে বিয়ে করলো। তাদের সম্পর্কের সাথে প্রতিযোগিতা করে অনেক মধ্যবয়সী নারী কম বয়সী ছেলের সাথে সম্পর্কে জড়ায়। সে প্রমাণ করতে চায় কম বয়সী ছেলের কাছে সেও আকর্ষণীয়।

সম্পর্কে নিজের কর্তৃত্ব দেখানো

অনেক নারী প্রথম সম্পর্কে নিজের কর্তৃত্ব দেখাতে পারেনা। কিন্তু সম্পর্কে নিজের কর্তৃত্ব দেখানোর ইচ্ছে মনের মাঝে লুকিয়ে থাকে। তাই যখন সম্ভব হয়, খুজে নেয় কম বয়সী ছেলেকে যার উপর কর্তৃত্ব দেখানো যাবে। বয়সে ছোট ছেলেটিও তাতে আপত্তি তোলেনা। বরং সে তা ইনজয় কিরে।

ফেলে আসা সময়কে ফিরে পেতে

বয়স গড়িয়েছে অনেক। কিন্তু এখনো মাঝে মাঝে মৌসুমি নিলয়ইচ্ছে করে ২০-২২ বছরের সে সময়কে ফিরে পেতে। তাই কম বয়সী কোন ছেলে যখন আড় চোখে তাকিয়ে, মনে পড়ে যায় সে দিনগুলো। সেই দিন গুলো ফিরে পাবার আশায় তাই অনেকে কম বয়সে ছেলের ইশারায় সাড়া দেয়। মাধ্যবয়সেও যাদের সৌন্দর্য কমেনা, তাদের ক্ষেত্রে এমন হবার সম্ভাবনা বেশী থাকে।

কম বয়সী ছেলেরা কম সিরিয়াস আর বেশী রোমান্টিক হয়

বয়স্ক স্বামীর মাঝে রসিকতা কমতে থাকে। জীবন নিয়ে অনেক সিরিয়াস হয়ে পড়ে। কিন্তু কম বয়সী ছেলেরা কম সিরিয়াস আর বেশী রোমান্টিক হয়। তাই অনেকে কম বয়সী ছেলের দিকে ঝুকে পড়ে।

বিছানায় কর্তৃত্ব দেখানো

অনেকদিন ধরে সেক্স করার কারনে মধ্যবয়সী নারীরা বিছানায় অনেক পারদর্শী হয়ে উঠে। কিন্তু কম বয়সী ছেলেরা ততটা জানেনা। তাই কম বয়সী ছেলের সাথে সেক্স করার সময় মধ্যবয়সী নারীটিই ড্রাইভিং সিটে থাকে। সে ছেলেটিকে গাইড করে বিভিন্ন পজিশানে সেক্স করার জন্য। বয়সে বড় হওয়ার কারনে নারীর মাঝে সংকোচ কম থাকে। নিজের ইচ্ছে অনুযায়ী সে ছেলেটিকে দিয়ে যৌন চাহিদা পূরন করে। তাই তার তৃপ্তি যেমন বেশী থাকে, নিজের কর্তৃত্ব দেখাতে পারে।

কম বয়সী ছেলের সাথে সম্পর্ক করার ফ্যান্টাসি

মানুষের স্বভাব অস্বাভাবিক কাজ করা। তেমনি নারীর মাঝে বয়সে ছোট ছেলের সাথে সম্পর্ক গড়ার ইচ্ছে কাজ করে। এই অস্বাভাবিক কাজটা করার ইচ্ছে থেকে অনেকে বয়সে ছোট ছেলের সাথে জড়ায়।

বিছানায় উচ্ছাস ফিরিয়ে আনা

সম্পর্ক যত বয়স হয়, বিছানার উচ্ছাস তত কমতে বয়সে ছোট ছেলের সাথে নারীথাকে। মধ্যবয়সে তা অনেকটাই কমে যায়। কিন্তু নারীর মাঝে আগ্রহ কমেনা। তাই সে উচ্ছাস ফিরিয়ে আনতে অনেক নারী বয়সে ছোট ছেলেকে বিছানায় ডেকে নেয়। কম বয়সী ছেলের কাছেও মধ্যবয়সী নারীর সাথে সেক্স করার ইচ্ছে কাজ করে। ছেলেটি যেহেতু বয়সে ছোট থাকে, তার মনে হতে থাকে নারীটি অনেক অভিজ্ঞ।  তাকে তৃপ্তি দিতে এক্সট্রা ইফোরট লাগবে। তাই সে নিজেকে উজাড় করে দেয়। নারীর ইচ্ছে অনুযায়ী বিভিন্ন পজিশনে মিলিত হয়। বয়স কম থাকায় ছেলের মাঝে ফ্যান্টাসি কাজ করে। তাই লম্বা সময় ধরে এবং দিনে একাধিকবার সে নারীর সাথে মিলিত হয়। নারী বিছানায় তার হারানো তৃপ্তি ফিরে পায়।

বয়স সম্পর্কে বড় কোন বিষয় নয়। একটি মধ্যবয়সী নারী কম বয়সী ছেলের সাথে সম্পর্কে জড়াতে পারে।  একটি নারী যে কোন বয়সের ছেলেকে জীবন সাথী হিসাবে বেছে নিয়ে পারে। তবে বেছে নেয়ার সময় শুধু একটি বা দুটি চাহিদাকে বিবেচনায় না নিয়ে যদি জীবনের সকল চাহিদাকে বিবেচনায় নিয়ে যার সাথে সম্পর্কে কিরলে বেশীর ভাগ চাহিদা পূরন হবে, তা বিবেচনা করাই ভালো। আবার সম্পর্কের কোন এক সময়ে শুধু একটি বা দুটি চাহিদা মেটাতে এক সম্পর্ক ছেড়ে আরেক সম্পর্ক তে জড়ানো ঠিক হবে কিনা ভেবে দেখুন।

4 comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

//GA Code Start //GA code end