মৃদুলা আহমেদ রেসি আসছে নতুন রূপে – NariBangla

মৃদুলা আহমেদ রেসি আসছে নতুন রূপে

4 Replies

stardom

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মৃদুলা আহমেদ রেসি দীর্ঘদিন চলচ্চিত্রাঙ্গন থেকে দূরে ছিলেন। এরপর ২০১৫ সালে আবার সিনেমার কাজ শুরু করলেও মা হওয়ার কারণে দেড় বছর ধরে বিশ্রামে ছিলেন তিনি। তবে এবার নতুন লুকে চলচ্চিত্রাঙ্গনে ফিরছেন তিনি। এমনটাই জানান এই লাস্যময়ী নায়িকা।

২০০৩ সালে গোয়ালিনী বিনোদন বিচিত্রা ফটোসুন্দরী প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পরই মিডিয়ায় কাজ শুরু করেন তিনি। ২০০৪ সালে বুলবুল জিলানী পরিচালিত ‘নীল আঁচল’ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে বড় পর্দায় নাম লেখান। এরপর একে একে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ছবিতে অভিনয় করেন। মাঝে বিরতিতে থাকলেও চলতি বছরের মার্চে বন্ধন বিশ্বাসের ‘শূন্য’ ছবি নিয়ে বড় পর্দায় নিজের ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেন এ পর্দাকন্যা।

এ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেন ওমর রেসি ওমর সানিসানী। ছবিটি মুক্তির পর বেশ সাড়া পেয়েছেন। তাই আবারো নিজেকে নতুনভাবে সাজাচ্ছেন। বর্তমানে ওজন কমিয়ে নতুন লুকে বড়পর্দায় ফিরতে চান এ অভিনেত্রী। এজন্য প্রতিদিন চার ঘন্টা করে ব্যায়ামও করছেন।

রেসি কবে নতুন ছবি নিয়ে নতুন লুকে ফিরবেন নতুন রূপে রেসিজানতে চাইলে বলেন, যেদিন আমাকে নিয়ে ভালো গল্প লেখা হবে সেদিনই আবার কাজে ফিরবো। বর্তমানে নিজেকে তৈরি করছি। কারণ অনেকদিন বেবির কারণে নিজের দিকে তাকানোর সময় পাইনি। প্রতিদিন এখন চার ঘন্টা করে বনশ্রীর একটি ব্যায়ামাগারে সময় দিচ্ছি। পাশাপাশি ডায়েট করছি। ব্যায়াম করতে বেশ ভালোই লাগছে। দেখা যাক ফলাফল কি হয়। এখন শুধু নিজেকে নতুনভাবে দেখার অপেক্ষা।

রেসি আরো বলেন, এবার নিজেকে একেবারে বদলিয়ে ফিরব। দর্শকেরা এবার আমাকে নতুন রূপে দেখতে পাবে। বিদ্যা বালান যে ধরনের সিনেমায় কাজ করেন সেরকমের কিছু কাজ আমি করতে চাচ্ছি।

কি কারণে আপনাকে কাজে নিয়মিত পাওয়া যায় না ? এর উত্তরে রেসি বলেন, আমার ঘরে প্রার্থনা ও প্রত্যাশা নামে দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। তাদের দেখাশুনা করতে হয়। প্রার্থনা একটু বড় হলেও প্রত্যাশা এখনো অনেক ছোট। তাই চাইলেও অনেক কাজ করতে পারি না।

রেসি অভিনীত উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ছবি হচ্ছে এফ আই মানিকের ‘এক জবান’, ‘স্বামী ভাগ্য’ এবং মনতাজুর রহমান আকবরের ‘আমার স্বপ্ন আমার অহংকার’। এ পর্যন্ত ৪০টিরও বেশি ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। তার অভিনীত বেশিরভাগ ছবিই পেয়েছে দর্শকপ্রিয়তা।

২০১২ সালের ২২শে জুন চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী পান্থ শাহরিয়ারকে বিয়ে করেন রেসি। ২০১৩ সালে প্রথম সন্তানের মা হন। তার পর বিরতী দিয়ে ২০১৫ সালে আবার ছবি করেন। ২০১৬ সালে আবারো প্রেগন্যন্ট হন রেসি। নভেম্বরে ২য় কন্যা সন্তান জন্ম দেয়ার পর আবারো অনিয়মিত হন রেসি।


এই সময়ের ডিজিটাল ছবি নিয়ে রেসি বলেন, সারা
বিশ্বেই পরিবর্তনের হাওয়া লেগেছে। টেকনোলজি এখন মানুষের হাতের মুঠোয়। নিমিষেই যে কেউ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ছবি দেখতে পারছে। আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্রের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমাদেরকেও এগিয়ে যেতে হবে। কিন্তু তাই বলে নকল গল্পে কিংবা ছবির নামে টেলিছবি নির্মাণ করে চলচ্চিত্রের নাম ডুবানো ঠিক নয়। মৌলিক গল্পের পাশাপাশি সমাজের অসংগতি ও বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের বিষয়টি তুলে ধরলে দর্শক লাভবান হবেন। আমাদের মৌলিক গল্পের পাশাপাশি ছবির চিত্রনাট্যেও জোর দিতে হবে। ভালো কাজ দিয়েই সামনে এগিয়ে নিতে হবে আমাদের দেশীয় ছবি।

 

4 comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

//GA Code Start //GA code end